প্রশ্ন ও উত্তর

আমরা এখন পর্যন্ত কারো কাছ থেকে টাকা নিচ্ছি না।

আমাদের ওয়েবসাইটে বায়োডাটা তৈরি করতে হলে নূন্যতম আবশ্যকতা নিম্নরূপ-

পুরুষ
          ১/ ৫ ওয়াক্ত নামাযী হতে হবে।

          ২/ ওয়াজিব দাড়ি সুন্নতি পদ্ধতিতে বড় থাকতে হবে।

         ৩/ টাখনুর উপর কাপড় পরতে হবে।

নারী
         ১/ ৫ ওয়াক্ত নামাযী হতে হবে।

         ২/ “নিকাব” সহ ফরজ পর্দানশীন হতে হবে।

আমরা বিভিন্ন কারণে বায়োডাটা এপ্রুভ করি না। তার মাঝে কয়েকটি কারণ উল্লেখ করা হলো।

১/ আপনি যদি অভিভাবককে না জানিয়ে আমাদের ওয়েবসাইটে বায়োডাটা জমা দেন।

২/ অভিভাবকের নাম্বারের ঘরে নিজের নাম্বার লিখে রাখেন।

৩/ ৫ ওয়াক্ত নামাযী না হোন।

৪/ ওয়াজিব দাঁড়ি সুন্নতি পদ্ধতীতে বড় না থাকে। (পুরুষদের জন্য)

৫/ টাখনুর উপর কাপড় না পরেন। (পুরুষদের জন্য)

৬/ নিকাব সহ ফরজ পর্দা/বোরকা না পরেন। (নারীদের জন্য)

৭/ হিজাব পরেন কিন্ত নিকাব পরেন না। (নারীদের জন্য)

৮/ বায়োডাটাতে কোনো মিথ্যা তথ্য দিয়ে থাকলে।

৯/ প্রশ্নের উত্তর স্পষ্ট ভাবে না দিয়ে অন্য ভাবে দিলে। যেমনঃ শুধু “আলহামদুলিল্লাহ” বা “হুম” ইত্যাদি লিখেন অনেকেই, অথচ এটি দ্বারা হ্যাঁ/না স্পষ্টভাবে বোঝা যায় না ।

১০/ দ্বীনদার মুসলিম না হয়ে থাকলে।

১১/ কোনো গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে ফাঁকা রেখে দিলে। যেমনঃ অনেকেই “কতৃপক্ষের জিজ্ঞাসা” উত্তর না দিয়েই পাবলিশ করেন।

১২/ আলিয়া মাদ্রাসা শিক্ষিতদের জেনারেল সিলেক্ট করতে বলার পরেও কেউ যদি মাদ্রাসা সিলেক্ট করেন তাহলেও এপ্রুভ হয় না।

না পারবেন না, আপনি বায়োডাটা আপলোড করলে এপ্রুভ করা হবে না। যাদের ওয়াজিব দাঁড়ি সুন্নতী পদ্ধতিতে আছে শুধু তাদের বায়োডাটা এপ্রুভ করা হবে।

হ্যাঁ পারবেন। যে ঘরে ভুল তথ্য দেয়ার জন্য আপনার বায়োডাটা নট এপ্রুভ করা হয়েছে, সেই ঘরে সঠিক তথ্য দিয়ে Save Changes ক্লিক করে Publish Biodata করবেন তাহলে এপ্রুভ করা হবে ইন শা আল্লাহ। তবে উপরের প্রশ্নের উত্তরে উল্লিখিত বিশেষ শর্ত না থাকার কারণে যদি বায়োডাটা নট এপ্রুভ হয় তাহলে আর এপ্রুভ হবে না।

না, আপনি বায়োডাটা আপলোড করলে এপ্রুভ করা হবে না। যারা নিকাব সহ বোরকা পরেন শুধুমাত্র তাদের বায়োডাটা এপ্রুভ করা হয়।

না। আপনি পাত্র/পাত্রী যেই হোন না কেন, আমাদের ওয়েবসাইটে বায়োডাটা তৈরি করতে হলে অবশ্যই অভিভাবকের অনুমতি নিয়ে জমা দিতে হবে। অন্যথায় বায়োডাটা এপ্রুভ করা হবে না।

হ্যাঁ, পারবেন। তবে অবশ্যই আপনার অভিভাবকের অনুমতি নিয়ে বায়োডাটা তৈরি করতে হবে।

হ্যাঁ, আপনার যখন ইচ্ছা তখন বায়োডাটা ডিলিট করতে পারবেন। বায়োডাটা ডিলিট করতে ই-মেইল এর মাধ্যমে যোগাযোগ করুন।

আমাদের বায়োডাটা ফর্মে অনেক ব্যক্তিগত প্রশ্ন আছে, যেগুলোর উত্তর একমাত্র পাত্র-পাত্রী নিজেই ভাল জানেন। পরিবারের অন্য কেউ যদি ফর্মটি তৈরি করে দেন তাহলে সেই প্রশ্নগুলোর উত্তর বাহ্যিকভাবে সত্য হলেও কিছু ত্রুটি থেকে যাবে। এজন্য যার বিয়ে তাকেই লিখতে হবে এমন শর্ত আবশ্যক করা হয়েছে। তবে অনেকেই আছেন বাংলা টাইপ করতে জানেন না। এক্ষেত্রে বাংলা টাইপ করতে জানেন এমন একজনকে পাশে বসিয়ে উনি উত্তরগুলো বলে দিবেন, টাইপ জানা ব্যক্তি লিখে ফর্মটি তৈরি করবেন।

আমাদের সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ও উত্তর-

✓ এটি একটি ইসলামিক ম্যাটরিমনি ওয়েবসাইট।এখানে জেলা ,বিভাগ ও পড়াশুনার মাধ্যম ভিত্তিক দ্বীনদার পাত্র পাত্রীর বায়োডাটা খোঁজা ও পড়া যায়। একই সাথে দ্বীনদার পাত্র-পাত্রী চাইলে ওয়েবসাইটে বায়োডাটা তৈরি করে জমা দিতে পারে।

✓ না। এই ওয়েবসাইট শুধুমাত্র প্রাক্টিসিং দ্বীনদার মুসলিমদের জন্য বানানো হয়েছে।ওয়েবসাইট ব্যবহারের কিছু নূন্যতম শর্ত ছবিতে দেয়া আছে। যারা এই শর্ত পূরণ করতে পারবে তাদের জন্যে এই ওয়েবসাইট কাজ করবে ইনশাআল্লাহ্‌।

✓ না পারবেন না।আপনি যদি ছবিতে দেয়া শর্ত পূরণ করতে না পারেন তাহলে আমরা আপনার বায়োডাটা গ্রহণ করবো না।আমরা শুধু সিলেক্টিভ অডিয়েন্স(প্রাক্টিসিং মুসলিমের) জন্য কাজ করবো ইনশাআল্লাহ্‌।

✓যেভাবে বায়োডাটা জমা দিবেন তার ভিডিও টিউটরিয়াল(অবশ্যই সম্পূর্ণ ভিডিও দেখবেন তা নাহলে ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে-লিংক-

✓জি না।আমাদের মাধ্যমে খোঁজ পেয়ে বিয়ে সম্পূর্ণ হলেও আমরা কোন অর্থ দাবি করি না।

✓জি করতে হয়।আমরা শুধুমাত্র বায়োডাটার অভিভাবকের যোগাযোগ নাম্বারের জন্য নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ গ্রহণ করে থাকি তবে এটিও পাত্র-পাত্রীর যোগাযোগ নাম্বারের সিকিউরিটি হিশেবে।আমরা ইচ্ছা করলে এটিও ফ্রিতে করে দিতে পারি তবে এক্ষেত্রে যোগাযোগ নাম্বারের কোন ধরনের সিকিউরিটিই থাকবে না।এ ক্ষেত্রে দেখা যাবে বিয়েতে অনাগ্রহী অনেকেই যোগাযোগ নাম্বার নিয়ে ফেতনা ছড়াবে।আমাদের উদ্দেশ্য ফেতনা মুক্ত হয়ে বিয়েকে সহজ করা।

✓আমাদের ওয়েবসাইটে বায়োডাটা জমা দিতে হলে অবশ্যই-
পুরুষদের ক্ষেত্রে-২১ হতে হবে।
এবং নারীদের ক্ষেত্রে-১৮ হতে হবে।

✓ deenipatropatri.com মূলত যোগাযোগের মাধ্যম হিশেবে কাজ করে।আমরা কারো জন্যে পারসোনালি কাজ করে থাকি না।আপনাকে নিজ থেকে আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে পাত্র-পাত্রীর সন্ধান করতে হবে।কোন পাত্র-পাত্রীর বায়োডাটা পছন্দ হলে যোগাযোগ ফর্মের আবেদনের মাধ্যমে নির্দিষ্ট সিকিউরিটি মানি প্রদান করে আপনার পছন্দকৃত পাত্র-পাত্রীর অভিভাবকের যোগাযোগ নাম্বার নিতে হবে।আমাদের কাজ শুধু আপনাকে যোগাযোগ তথ্য দেয়া পর্যন্ত।এর পরবর্তীতে আপনাকে নিজ থেকে বায়ডাটাতে দেয়া প্রদত্ত তথ্যের সত্যতা যাচাই করে নিতে হবে এবং নিজের ইচ্ছায় বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হতে হবে।
আমাদের সম্পর্কে আরো পড়তে ও উদ্দেশ্য সম্পর্কে জানতে পড়ুন নিচের লিংকে ক্লিক করে-